Monday, June 24, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গ৩০ এপ্রিল রাজ্যে আরো ৫৯ হাজার মানুষের চাকরী যাবে,দাবি বিজেপি বিধায়কের

৩০ এপ্রিল রাজ্যে আরো ৫৯ হাজার মানুষের চাকরী যাবে,দাবি বিজেপি বিধায়কের

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়া: ৪ ঠা জুনের পর ওন্দা বিধানসভার সব পঞ্চায়েত দখল করবই করব, ভোটের মুখে প্রকাশ্যে হুঁশিয়ারি দিয়ে বিতর্কে ওন্দার বিজেপি বিধায়ক। বললেন ৩০ এপ্রিল রাজ্যে আরো ৫৯ হাজার মানুষের চাকরী যাবে, এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। বিধায়কের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে খোঁচা তৃনমূলের। প্রকাশ্যে ওন্দা বিধানসভা এলাকার পঞ্চায়েত দখলের হুঁশিয়ারি দিয়ে আগেই বিতর্কে জড়িয়েছিলেন ওন্দার বিজেপি বিধায়ক অমরনাথ শাখা। এবার ভোটের মুখে প্রকাশ্য সভামঞ্চ থেকে একেবারে দিন বেঁধে দিলেন তিনি। হুঁশিয়ারি দিয়ে তাঁর দাবী আগামী ৪ ঠা জুন লোকসভা নির্বাচনের ফল ঘোষণার পরই ওই বিধানসভার সব পঞ্চায়েত দখল করে নেওয়া হবে। একই সঙ্গে তাঁর বক্তব্য তৃনমূলের জন্য রাজ্যে ২৫ হাজার চাকরী গেছে। আর ৩০ এপ্রিল আরো ৫৯ হাজার মানুষের চাকরী যাবে। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা। বিধায়কের এহেন বক্তব্যে তোলপাড় শুরু হয়েছে রাজনৈতিক মহলে। তৃনমূল ওই বিধায়কের শিক্ষাগত যোগ্যতা নিয়ে প্রশ্ন তুলে সমালোচনায় সরব হয়েছে। তৃণমূলের দাবী বিজেপি বিধায়কের মস্তিষ্ক বিভ্রাট দেখা দিয়েছে, হতাশা থেকে পাগল হয়ে এসব বকছেন। বাঁকুড়ার ওন্দার বিধায়ক অমরনাথ শাখা বিজেপির বিষ্ণুপুর সাংগঠনিক জেলার সভাপতি। বারেবারে তাঁর মন্তব্য নিয়ে যেমন রাজনৈতিক বিতর্ক তৈরী হয়েছে তেমনই প্রকাশ্যে তাঁর একাধিকবার বক্তব্যে অস্বস্তিতে পড়তে হয়েছে দলকেও। ভোটের মুখেও তাঁর মুখে শোনা গেল সেই বেলাগাম বক্তব্য। গতকাল সন্ধ্যায় বাঁকুড়ার ওন্দা বিধানসভার রতনপুরে বিজেপির একটি নির্বাচনী প্রচার সভায় বক্তব্য রাখতে গিয়ে অমরনাথ শাখা বলেন,”ওন্দা বিধানসভার বহু পঞ্চায়েতে শাসক তৃনমূলের ঘাড়ে আমরা নিঃশ্বাস ফেলছি। ৪ ঠা জুনের পর লোকসভা ভোট মিটতেই আমরা এই বিধানসভার প্রত্যেকটি পঞ্চায়েত দখল করে নেব। কারো হিম্মৎ নেই আমাদের আটকায়”। রাজ্যের চাকরী দুর্নীতি প্রসঙ্গেও শোনা যায়া তাঁর বেলাগাম মন্তব্য। ২৫ হাজার চাকরী যাওয়ার জন্য পুরোপুরি তৃনমূলকে দোষারোপ করে বিধায়ক অমরনাথ শাখার দাবী,” আগামী ৩০ এপ্রিল এ রাজ্যের আরো ৫৯ হাজার মানুষ চাকরী হারাবেন। এখন শুধু সময়ের অপেক্ষা”। মঞ্চে নিজের বক্তব্যের সমর্থনে অমরনাথ শাখার যুক্তি, এই বক্তব্য কোনো উস্কানিমূলক মন্তব্য নয়। লোকসভার ফলাফল ঘোষণার পর তৃনমূলে দলীয় কার্যালয় খোলার মতো কেউ থাকবে না। তখন বিজেপি ছাড়া পঞ্চায়েত চালানোর মতো আর কেউ থাকবে না। বিধায়কের প্রকাশ্যে এহেন মন্তব্যের কড়া সমালোচনা করেছে তৃনমূল। তৃনমূলের দাবী অমরনাথ শাখার শিক্ষাগত যোগ্যতা অত্যন্ত কম। ভোট যত এগিয়ে আসছে ততই হতাশায় ভূগে এই ধরনের মন্তব্য করে বসছেন। পঞ্চায়েত দখল করা তো দূরে থাক বিজেপির লোকজন জায়গা খুঁজে রাখুন ৪ ঠা জুনের পর তাঁরা কোথায় লুকোবেন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments