Monday, June 24, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গমানুষের দরজায় দরজায় ঘুরে সমস্যার তথ্য সংগ্রহ করছেন বিডিও

মানুষের দরজায় দরজায় ঘুরে সমস্যার তথ্য সংগ্রহ করছেন বিডিও

নিজস্ব প্রতিনিধি বাঁকুড়া: মানুষের দরজায় দরজায় ঘুরে সাধারণ মানুষের সমস্যার তথ্য সংগ্রহ করছেন। সাধ্যমতো চেষ্টা করছেন সমস্যা সমাধানের। কিন্তু হঠাৎ প্রশাসনিক আধিকারিকদের কেন এমন উদ্যোগ তা নিয়ে শুরু হয়েছে রাজনৈতিক চাপানউতোর। বিরোধীদের দাবী শাসক দলের জনপ্রতিনিধিরা গ্রামে যেতে পারছেন না। তাই বিডিও সহ প্রশাসনিক আধিকারিকদের দিয়ে চলছে ড্যামেজ কন্ট্রোল। বিরোধীদের দাবী ওড়াল তৃণমূল। দিন কয়েক আগে বাঁকুড়ার সারেঙ্গায় দেখা গিয়েছিল বিডিও সাইকেল নিয়ে ঘুরে বেড়াচ্ছেন গ্রামে গ্রামে। কখনো বাড়ির দাওয়ায় চাটাই পেতে বসে সমস্যার কথা শুনছেন কখনো স্থানীয় বাসিন্দাদের উঠোনে দড়ির খাটিয়ায় বসে স্থানীয়দের বিভিন্ন আবেদনপত্র পূরণ করে দিচ্ছেন বিডিও। সারেঙ্গার পর এবার একই ছবি দেখা গেল সিমলাপালে। বিডিও ছুটলেন গ্রামে গঞ্জে। স্থানীয়দের বাড়ি বাড়ি ঘুরে শুনলেন সমস্যার কথা। আস্বাস দিলেন সমাধানেরও। বিডিওকে এমন ভূমিকায় দেখে কিছুটা হলেও আস্বস্ত স্থানীয় বাসিন্দারা। কিন্তু যেখানে লোকসভা নির্বাচন হাতে গোনা দিন বাকি সেখানে কেন হঠাৎ হুঁশ ফিরল প্রশাসনের? কেনই বা প্রশাসনের ব্লক স্তরের আধিকারিকরা ছুটছেন গ্রাম গঞ্জে, মানুষের ঘরে ঘরে? বিরোধীদের দাবী রাজ্যের শাসক দলের ছোট বড় সকল স্তরের নেতা ডুবে রয়েছে দুর্নীতিতে। মানুষের হাতে কাজ নেই, শিক্ষিতরা চাকরীর দাবীতে দিনের পর দিন রাস্তায় বসে ধর্না দিচ্ছে। এই অবস্থায় শাসক দলের নেতারা ক্ষোভের মুখে পড়ার আশঙ্কায় যেতে পারছেন না মানুষের দরজায়। তাই ভোটের আগে প্রশাসনিক আধিকারিকদের মানুষের দরজায় পাঠিয়ে ক্ষোভ সামাল দেওয়ার চেষ্টা চলছে। বিরোধীদের এমন দাবীকে আমল দিতে নারাজ তৃনমূল। তৃনমূলের দাবী সরকারের নির্দেশ মতো বিডিওরা গ্রামে গ্রামে ঘুরে দেখছেন সরকারি পরিসেবাগুলি যথাযথ জায়গায় পৌঁছাচ্ছে কিনা । এর সুফল পাচ্ছে সাধারণ মানুষ। তৃনমূল নেতাদের গ্রামে না যাওয়ার প্রসঙ্গে তৃনমূলের সাফ জবাব তৃনমূলই তো প্রায় সর্বত্র পঞ্চায়েত চালাচ্ছে। অতয়েব নেতারা গ্রামে যেতে পারছেন না এই অভিযোগ সম্পূর্ণ ভিত্তিহীন। রাজনৈতিক চাপানউতোরের মাঝে বিডিওরা বলছেন এই ঘটনা নতুন নয়। এই প্রক্রিয়া ধারাবাহিক। পাড়ায় সমাধান কর্মসূচীর অঙ্গ হিসাবেই তাঁরা গ্রামের মানুষের কাছে গিয়ে তাঁদের অভাব অভিযোগ শুনে তা সমাধানের চেষ্টা করছেন। বিডিওদের পাড়ায় পাড়ায় ঘুরে বেড়ানোর পিছনে আসল কারন যাই থাকুক বা সমস্যার আশু সমাধান হোক বা না হোক, সরাসরি বিডিওকে নিজেদের সমস্যার কথা বলতে পেরে কিছুটা হলেও আস্বস্ত গ্রামের মানুষ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments