Friday, May 24, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গমোটের উপর শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হলো আসানসোল কেন্দ্রের ভোট,জয়ের দাবি দু'পক্ষেরই

মোটের উপর শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হলো আসানসোল কেন্দ্রের ভোট,জয়ের দাবি দু’পক্ষেরই

সার্থক কুমার দে,পান্ডবেশ্বরঃ  সোমবার দু-একটি বিক্ষিপ্ত ঘটনা ছাড়া মোটের উপর শান্তিপূর্ণভাবে শেষ হলো আসানসোল লোকসভা কেন্দ্রের ভোট। নির্বাচন কমিশন জানায় বিকেল পাঁচটা পর্যন্ত এই কেন্দ্রে পড়েছে ৬৯.৪৩ শতাংশ ভোট। ভোট গ্রহণের নির্দিষ্ট সময় পরেও বেশ কিছু বুথে ভোটারদের লাইন দেখা গেছে। তাই ভোট শতাংশ বাড়বে বলেই কমিশন জানায়। সকাল ৭-টার সময় শুরু হয় ভোটগ্রহণ। সকালের দিকে বিভিন্ন জায়গায় বেশ কিছু বুথে ইভিএমে বিভ্রান্তি দেখা যায়। দ্রুত সেগুলিকে বদলে দেওয়া হয়।‌ এদিন বেলা দশটা নাগাদ পাণ্ডবেশ্বর বিধানসভার বাঁকোলা বালুডাঙ্গা অবৈতনিক প্রাথমিক বিদ্যালয়ের বুথে সস্ত্রীক ভোট দেন তৃণমূলের জেলা সভাপতি তথা বিধায়ক নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী। আসানসোলে নিজের কেন্দ্রে সকাল সকাল ভোট দিতে দেখা যায় মন্ত্রী মলয় ঘটক,সিপিআইএম প্রার্থী জাহানারা খান কে। বিজেপির পক্ষ থেকে অভিযোগ করা হয় বিভিন্ন বুথে তাদের এজেন্টদের বসতে দেওয়া হয়নি। আবার বেশ কিছু বুথে বেলা বাড়ার সাথে সাথে বিজেপির এজেন্টদের বের করে দেওয়া হয়। এদিন অধিকাংশ বুথে সিপিআইএমের এজেন্টদেরও দেখা যায়নি। বেশ কিছু জায়গায় বুথের বাইরে নকল ইভিএম নিয়ে ভোটারদের প্রভাবিত করার অভিযোগ ওঠে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। যদিও সব অভিযোগ অস্বীকার করা হয়েছে শাসকদলের পক্ষ থেকে। এদিন কুলটি সহ বেশ কয়েকটি জায়গাই ঘুরতে দেখা যায় তৃণমূল প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিনহাকে। বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্র সিংহ আলুওয়ালিয়াকে এদিন বাইরে ঘুরতে দেখা যায়নি। আসানসোলে দলীয় কার্যালয়ে অস্থায়ী ওয়ার রুমে বসেই তিনি ভোট তদারকি করেন। বিজেপির পশ্চিম বর্ধমান জেলা সভাপতি বাপ্পা চট্টোপাধ্যায় অভিযোগ করেন, রাজ্য পুলিশ নিরপেক্ষভাবে কাজ করেনি। শাসক দলের পক্ষেই এদিন রাজ্য পুলিশ কাজ করেছে।  কেন্দ্র বাহিনীকেও ঠিকমতো ব্যবহার করা হয়নি বলে অভিযোগ বাপ্পাবাবুর। অন্যদিকে তৃণমূলের জেলা সভাপতি নরেন্দ্রনাথ চক্রবর্তী বলেন, বেশ কিছু জায়গায় কেন্দ্রীয় বাহিনী ও কয়েকটি বুথে পোলিং অফিসাররা বিজেপির পক্ষে ভোট দেওয়ার জন্য ভোটারদের প্রভাবিত করছিল। তা সত্ত্বেও মোটের উপর শান্তিপূর্ণভাবে ভোট হয়েছে বলে জানান নরেনবাবু। ভোটাররা তাদের পক্ষে ভোট দিয়েছে বলে দাবি করেন তৃণমূল প্রার্থী শত্রুঘ্ন সিনহা ও বিজেপি প্রার্থী সুরেন্দ্র সিংহ আলুওয়ালিয়া উভয়েই। তবে শেষ হাসি কে হাসবেন,কে জিতবেন ? তা অবশ্য জানা যাবে ৪ জুন ভোটের ফল প্রকাশের পরই।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments