Monday, June 24, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গসম্পত্তি বিবাদের জেরে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ দুর্গাপুরের কাঁটাবেড়িয়ায়

সম্পত্তি বিবাদের জেরে গৃহবধূকে পুড়িয়ে মারার অভিযোগ দুর্গাপুরের কাঁটাবেড়িয়ায়

নিজস্ব সংবাদদাতা,দুর্গাপুর: সম্পত্তি নিয়ে বিবাদের জেরে এক গৃহবধূকে নৃশংসভাবে খুন করা হলো। ঘটনা দুর্গাপুর ফরিদপুর ব্লকের লাউদোহা থানার কাঁটাবেড়িয়া গ্রামের। এক মহিলার কাতর চিৎকার শুনে প্রতিবেশীরা ছুটে এসে দেখল ভয়ঙ্কর দৃশ্য। আমড়া গাছের তলায় দাউ দাউ করে জ্বলছে মহিলা। নিমিষে দুর্গাপুর ফরিদপুরের কাঁটাবেড়িয়া জুড়ে পড়ে গেলো শোরগোল। রবিবার সন্ধ্যায় জ্বলন্ত ওই মহিলাকে আশঙ্কাজনক অবস্থায় উদ্ধার করে দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতলে ভর্তি করা হলে রাতেই মৃত্যু হয় মহিলার।মৃতা মহিলার নাম চায়না বাউরি(৫৩)। মৃতা মহিলার ছেলে প্রদীপ বাউরির অভিযোগ,”কাঁটাবেড়িয়া এলাকার নিজস্ব বাড়ি থেকে মিথ্যা অপবাদ দিয়ে মা-বাবা আর তাঁদের এলাকা ছাড়া করেছিল মামার ছেলেরা। তারপর থেকেই মা বাবা কখনো দিদিদের বাড়িতে আবার কখনো তাঁদের বাড়িতে থাকতো। মাঝেমধ্যে মা কাঁটাবেড়িয়ার বাড়িতে এলে মামার ছেলে বাবলু বাউরি, কার্তিক বাউরী এবং তাঁর বউ সরস্বতী বাউরী এবং সরস্বতী বাউরির দাদা ঠাকুর বাউরি অত্যাচার করতো। রবিবার সন্ধ্যায় এলাকাবাসীদের কাছ থেকে খবর পেয়ে কাঁটাবেড়িয়ায় পৌঁছে দেখেন বাড়ির বাইরে অগ্নিদগ্ধ অবস্থায় ছটফট করছে মা। বাড়ির ভেতরেই কেরোসিন ঢেলে আগুন জ্বালিয়ে দেওয়া হয়েছিল বলে অভিযোগ। কোনক্রমে বাড়ি থেকে বেরিয়ে ছিল কিন্তু আগুনের ভয়াবহতায় শরীরের বেশিরভাগ অংশই পুড়ে যায়। হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হলে সেখানে বাবলু বাউরি স্বরসতী বাউড়ি সহ চারজনের দিকে ইঙ্গিত দিয়েছেন। দীর্ঘদিন ধরে সম্পত্তি নিয়ে বিবাদ চলছিল মামার ছেলেদের সাথে মায়ের। সেই জন্যই নির্মমভাবে পুড়িয়ে মারা হলো। তাঁরা দুর্গাপুর ফরিদপুর থানার পুলিশের কাছেও অভিযোগ করেছেন। বাউরী সমাজকেও বিষয়টি জানিয়েছেন।” মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য দুর্গাপুর মহকুমা হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। পুরো ঘটনা খতিয়ে দেখে তদন্তে নেমেছে দুর্গাপুর ফরিদপুর থানার পুলিশ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments