Monday, June 24, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গআরপিএফের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বৃহন্নলাদের ধুন্ধুমার কাণ্ড বর্ধমান ষ্টেশনে

আরপিএফের বিরুদ্ধে অভিযোগ তুলে বৃহন্নলাদের ধুন্ধুমার কাণ্ড বর্ধমান ষ্টেশনে

নিজস্ব সংবাদদাতা, বর্ধমান, ২১ মে- মঙ্গলবার সকালে বর্ধমান ষ্টেশনে বৃহন্নলাদের বিক্ষোভে ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়ালো। ক্ষুব্ধ বৃহন্নলারা সংগঠিতভাবে হামলা চালালেন আরপিএফের কর্মরত জওয়ানদের বিরুদ্ধে। এক আরপিএফ জওয়ানকে বেধড়ক মারধরও করলেন। এই ঘটনায় ব্যাপক উত্তেজনা ও চাঞ্চল্য ছড়ায় ষ্টেশন চত্বরে। বৃহন্নলাদের কেউ কেউ এদিন উল্লঙ্গ হয়ে দাপিয়ে বেড়ান ষ্টেশন চত্বর। আতংকে সাধারণ যাত্রীরা ছুটোছুটি শুরু করে দেন। এই বিক্ষোভের মাঝেই বৃহন্নলাদের হাতে আক্রান্ত হন আরপিএফের এক মহিলা সাব ইন্সপেক্টর ও এক মহিলা কনস্টেবল সহ একজন সাব ইন্সপেক্টর ও দুজন পুরুষ কনস্টেবল। এই ঘটনায় আরপিএফ পোষ্ট সহ বর্ধমান স্টেশন চত্বরে চরম উত্তেজনা ছড়িয়ে পরে। আরপিএফ তাঁদের ওপর লাগাতার জুলুমবাজি চালাচ্ছে, এই অভিযোগ তুলে প্রতিবাদ স্বরুপ বৃহন্নলাদের একটা বড় অংশ এদিন অবস্থান বিক্ষোভে বসে পরে বর্ধমান স্টেশনের ১ নম্বর প্লাটফর্মে আরপিএফ পোষ্টের সামনে। এদিন বিক্ষোভকারীদের একজন জানিয়েছন, সোমবার তাঁরা কলকাতায় যাচ্ছিলেন ভোট দিতে। এক্সপ্রেস ট্রেনে যাবার সময় ট্রেনের মধ্যেই তাঁদের সঙ্গে রীতিমত দুর্ব্যবহার করেন আরপিএফের জওয়ানরা। তাঁদের বিরুদ্ধে মিথ্যা কেস দেওয়া হয়। বিক্ষোভকারীদের একাংশ এদিন ট্রেনের বৈধ টিকিট দেখিয়ে জানিয়েছেন, তাঁরা টিকিট কেটেই যাচ্ছিলেন। কিন্তু তাঁদের সঙ্গে চূড়ান্ত অসভ্যতা করা হয়েছে। অন্যদিকে, আর একদল বৃহন্নলা জানিয়েছেন, তাঁরা ভিক্ষাবৃত্তি করেন। ট্রেনে ট্রেনে তাঁরা ভিক্ষা করেন। কিন্তু প্রায়শই তাঁদের জোর করে ট্রেন থেকে নামিয়ে দেওয়া, মিথ্যা কেস দেবার নাম করে আড়ালে নিয়ে গিয়ে তাঁদের কাছ থেকে জোর করে তোলাবাজি করা হয়। ক্ষুব্ধ বৃহন্নলারা এদিন জানিয়েছেন, সরকার তাঁদের ভিক্ষাবৃত্তিকে অবৈধ ঘোষণা করুক। নাহলে বিকল্প তাঁদের কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করুক। তা নাহলে তাঁরা এই জুলুমবাজি মানবেন না। প্রয়োজন বোধে আরও জোড়ালো আন্দোলন করবেন তাঁরা। এদিকে, মঙ্গলবার সকালে ব্যস্ততম বর্ধমান ষ্টেশনের ১নং প্ল্যাটফর্মে শতাধিক বৃহন্নলারা আরপিএফের অফিস ঘেরাও করে বিক্ষোভ দেখাতে শুরু করেন। কেউ কেউ অশ্লীল অঙ্গভঙ্গি করতে শুরু করেন। ফলে সাধারণ যাত্রীরা আতংকিত হয়ে পড়েন। এই সময়ই আন্দোলনকারীরা আরপিএফ জওয়ানদের ওপর চড়াও হয়। রীতিমত চড়, ঘুঁষি মারা হয় এক কনষ্টেবলকে। অপরদিকে, এই ঘটনায় এদিন আর পি এফের এক আধিকারিক জানিয়েছেন, বৃহন্নলাদের ট্রেনের মধ্যে ভিক্ষাবৃত্তি বন্ধ করতে পদক্ষেপ নিয়েছে বর্ধমান আরপিএফ। দূরপাল্লা বা লোকাল ট্রেনের যাত্রাতে সাধারণ মানুষের বিরক্তির কারণ হয়ে উঠেছেন বৃহন্নলারা। এমনটাই প্রতিদিন তাঁদের কাছে অভিযোগ আসছে। আরপিএফের বিরুদ্ধে ওঠা সমস্ত অভিযোগ অস্বীকার করে আর পি এফের ওই আধিকারিক জানিয়েছেন, রেলের যাত্রীদের কাছ থেকে জোড়-পূর্বক টাকা চাওয়ার অভিযোগ জমা পড়ছিল রেল বিভাগে। তাই পূর্ব রেলের আধিকারিকদের নির্দেশেই বৃহন্নলাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে আরপিএফের পক্ষ থেকে। এদিকে, আরপিএফ সূত্রে জানা গেছে, এদিন আরপিএফ জওয়ানদের ওপর হামলার অভিযোগ নিয়ে ব্যবস্থা নিতে চলেছেন তাঁরা।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments