Friday, June 14, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গশক্তিগড় টেক্সটাইলের ম্যানেজার ও তাঁর সহ কর্মীকে খুনের হুমকির অভিযোগ উঠলো বরখাস্ত...

শক্তিগড় টেক্সটাইলের ম্যানেজার ও তাঁর সহ কর্মীকে খুনের হুমকির অভিযোগ উঠলো বরখাস্ত হওয়া কর্মীর বিরুদ্ধে

নিজস্ব প্রতিনিধি, বর্ধমান: ওষুধ কিনতে বেরিয়ে ’হুমকি’ শুনে রীতিমত আতঙ্কিত এই রাজ্যের পাট শিল্পের অন্যতম প্রতিষ্ঠান পূর্ব বর্ধমানের “শক্তিগড় টেক্সটাইল ইণ্ড্রাস্ট্রিজের’ ম্যানেজার ও তাঁর সহকর্মীর। আর যাঁর বিরুদ্ধে এমন খুনের’ হুমকি দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে তিনি হলেন সাময়িক ভাবে বরখাস্ত হওয়া ওই টেক্সটাইল ইণ্ডাস্ট্রিজেরই কর্মী। পুজোর ছুটি শেষে ওই টেক্সটাইল ইণ্ডাস্ট্রি পুরো দমে চালু হবার পর এই ঘটনা জানাজানি
হয় । আর তা নিয়ে শক্তিগড়ের শিল্পতালুক বড়শুল এলাকায় ব্যাপক চাঞ্চল্য ছড়িয়ে পড়েছে।খুনের হুমকি দেওয়ার ঘটনায় জড়িত বরখাস্ত হওয়া কর্মী জাকির হোসেন শেখের বিরুদ্ধে শক্তিগড় থানায় এফ আই আর দায়ের করেছেন ইণ্ডাস্ট্রিজের জেনারেল ম্যানেজার নির্মল কুমার গুহরায় । সেই এফ আই আরের ভিত্তিতে পুলিশ ৩৪১,৩২৩,৫০৪
এবং ৫০৬ আই পি সি ধারায় মামলা রুজু করে
ঘটনার তদন্ত শুরু করেছে। শক্তিগড় থানার এক অফিসার বলেন,’অভিযুক্তের সন্ধানও চালানো হচ্ছে’। যদিও সমস্ত অভিযোগ অসত্য বলে জাকির হোসেন শেখ দাবি করেছেন। পুলিশকে শক্তিগড় টেক্সটাইল ইণ্ডাস্ট্রিজের জেনারেল ম্যানেজার নির্মল গুহরায় জানিয়েছেন, “তাঁদের ইণ্ডাস্ট্রির সিনিয়র স্টাফ (জেনারেল ম্যানেজার মেইনটেনেন্স বিভাগ ) হলেন সুশীল কারাটি। তাঁর সহকর্মী হলেন কমলেশ বেরা। ওষুধ কিনতে দু’জন গত শুক্রবার রাত পৌনে ৯ টা নাগাদ বড়শুল সি ডি পি স্কুলের কাছে ওষুধের দোকানের দিকে যাচ্ছিলেন। যখন তারা সি ডি পি স্কুলের গেটের কাছে তাদের পিছু নিয়ে মোটর বাইকে চেপে সেখানে যান স্থানীয় তাঁতখণ্ড এলাকার বাসিন্দা ইণ্ডাস্ট্রির সাসপেনডেড কর্মী জাকির হোসেন শেখ। নির্মল গুহরায়ের অভিযোগ,“ওই জায়গায় বাইক থামিয়েই জাকির হোসেন চড়াও হয় তাঁদের ইণ্ডাস্ট্রির সিনিয়র স্টাফ সুশীল কারাটি ও কমলেশ বেরার উপর।জাকির অত্যন্ত খারাপ ভাষায় তাদের গালিগালাজ করা ছাড়াও শারীরিক ভাবেও নিগ্রহ করে।এমনকি কেন সুশীল কারাটি শক্তিগড় টেক্সটাইল ইণ্ডাস্ট্রির কাজ ছেড়ে চলে যাচ্ছে না, তার কৈফিয়তও দাবি করে জাকির“ । এ নিয়ে সুশীল কারাটি ও কমলেশ বেরা প্রতিবাদ করতেই জাকির হোসেন শেখ হুমকি দিয়ে তাদের বলে ,“ তোদের কেটে ফেলবো ,’শুট’ করে দেব“।এমন সময় স্থানীয় কয়েকজন ঘটনাস্থলে গিয়ে পরিস্থিতি সামাল দেন। খুনের হুমকি শুনে ভীত সন্ত্রস্ত হয়ে পড়া সুশীল কারাটি ও কমলেশ বেরাকে স্থানীয়রাই ওই রাতে ইণ্ডাস্ট্রিতে পৌঁছে দেন বলে জেনারেল ম্যানেজার নির্মল গুহরায় পুলিশকে জানিয়েছেন। জাকির হোসেন শেখ বলেন, আমি শক্তিগড় টেক্সটাইলের বরখাস্ত হওয়া কর্মীও নই ,আর কাউকে এমন হুমকিও দিই নি। আমার বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা করা হয়েছে।নিজের দাবির সপক্ষে সাফাই দিতে গিয়ে জাকির বলেন,“গত শুক্রবার রাত পৌনে ৯ টা নাগাদ আমি বাইকে চেপে বড়শুলের সি ডি পি হাই স্কুলের সামনের রাস্তা ধরে বাড়ি ফিরছিলাম । ওই সময়ে রাস্তার ’অফ সাইড ’ দিয়ে হাঁটছিলেন দু’জন ব্যক্তি।তার জন্য কোন দুর্ঘটনাও ঘটে যেতে পারতো।তাই আমি বাইক থামিয়ে রাস্তার ’অফ সাইড’ দিয়ে হাঁটি নিয়ে আপত্তি করি। তা নিয়েই ওই দু’জনের সঙ্গে আমার বাদানুবাদ বাঁধে। পরে তা মিটেও যায় ।এর বাইরে আর কিছুই হয় নি।“জাকির এও দাবি করেন ,’যে দু’জনের সঙ্গে তাঁর বাদানুবাদ হয়েছিল তারা যে শক্তিগড় টেক্সটাইলের পদাধিকারী সেটা তিনি জানতেন না। তবে তিন মনে করছেন,শক্তিগড় টেক্সটাইলের শ্রমিকদের স্বার্থে সবসময় তিনি সরব হন বলেই হয়তো বদলা নিতেই তাঁর বিরুদ্ধে এমন মিথ্যা মামলা কর্তৃপক্ষ করেছে। তবে এই বিষয়ে শক্তিগড় টেক্সটাইল ইণ্ডাস্ট্রিজের জেনারেল ম্যানেজার নির্মল গুহরায় কিছু বলতে অস্বীকার করেন।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments