Thursday, April 25, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গভোরে ঘন কুয়াশা,বেলা বাড়তেই চড়া রোদ,আবহাওয়ার অন্য ছবি বাঁকুড়ায়

ভোরে ঘন কুয়াশা,বেলা বাড়তেই চড়া রোদ,আবহাওয়ার অন্য ছবি বাঁকুড়ায়

নিজস্ব প্রতিনিধি,বাঁকুড়াঃ সকাল দেখে অনেকেই সারাদিনের আন্দাজ করে থাকেন, কিন্তু তাদের ভুল ভাঙবে বসন্তের বাঁকুড়ায়। আজ ঘুমটা ভেঙেছিলে ঘন কুয়াশার মধ্যে, তবে আটটা বাজতে না বাজতেই অবশ্য কুয়াশার চাদর সরিয়ে আকাশের দখল নিয়েছে সূর্যিমামা। চড়া রোদ গত কয়েকদিন ধরেই চল্লিশের ওপরে জেলার তাপমাত্রা। গত ২৪ ঘন্টায় জেলার তাপমাত্রা ৩৯.৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। গরমের দহন জ্বালায় পুড়ছে জেলা বাঁকুড়া। তারই মাঝে যারা ভোরবেলায় বিছানা ছেড়ে ওঠেন বা রোদ বাড়ার আগেভাগে নিজের গন্তব্যে পৌঁছে যেতে চান তারা দেখলো জেলা বাঁকুড়ার এক অন্য ছবি।ঘন কুয়াশায় ঢেকেছে গোটা আকাশ। এক টুকরো দিল্লি নেমে এসেছে বাঁকুড়াতে। বসন্তে ঘন কুয়াশা তার সঙ্গে তীব্র গরম এমন ঘটনা আগে কখনো কেউ দেখেছেন বলে মনে করতে পারছেন না। তবে কুয়াশা বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি। আটটা বাজতে না বাজতেই বাঁকুড়ার আকাশের দখল চলে গিয়েছে সূর্য মামার হাতে। আবার সেই গত কয়েকদিনের চেনা ছবি, চড়া রোদ মাথায় নিয়ে যে যার মতো কাজে বেরিয়েছেন।  কাজের ফাঁকে গাছের তলায় একটু জিরিয়ে নিচ্ছেন। কেউ কেউ আবার ডাব সহ ঠান্ডা পানীয়ের দোকানে ভীড় জমিয়েছেন। বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে জেলার রাস্তাঘাট ফাঁকা হয়ে যাচ্ছে। আজ থেকে আবার আবহাওয়া দপ্তর আশঙ্কার কথা শুনিয়েছেন। বেলা বাড়লেই তাপপ্রবাহ লু’বইবে, চিন্তায় প্রহর গুনছেন জেলাবাসী। গ্রীষ্ম হোক কিংবা শীত তাপমাত্রার রেকর্ডে বরাবরই উপরের দিকে থাকে বাঁকুড়া জেলার নাম। কিন্তু এপ্রিলের গোড়াতে চল্লিশ এর উপরে তাপমাত্রা চিন্তায় ফেলেছে জেলাবাসীকে। এখনই যদি এমন অবস্থা হয় সেক্ষেত্রে মে জুন মাসে তাপমাত্রার পারদ কোথায় গিয়ে পৌঁছবে সেটা চিন্তা করেই দরদর করে ঘামছেন জেলাবাসী। এক পসলা বৃষ্টির আশায় দিন গুনছেন। কিন্তু আসার কথা শোনাচ্ছে না আবহওয়া দপ্তর।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments