Thursday, April 25, 2024
Google search engine
Homeদক্ষিণবঙ্গদুই  ভিলেজ পুলিশের সাহস ও বুদ্ধিতে বমাল দুই দুস্কৃতিকে পাকড়াও করল পুলিশ

দুই  ভিলেজ পুলিশের সাহস ও বুদ্ধিতে বমাল দুই দুস্কৃতিকে পাকড়াও করল পুলিশ

নিজস্ব প্রতিনিধি,বর্ধমানঃ দিনে দুপুরে প্রকাশ্য রাস্তায়  আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে কেপমারির ঘটনায় একেবারে  ফিল্মি কায়দায় প্রাণের ঝুঁকি নিয়ে দুই দুস্কৃতিকে ধরায় যেমন খুশী স্থানীয় বাসিন্দারা,তেমনি খুশী পুলিশ প্রশাসনের  আধিকারিকরাও। ঘটনাটি ঘটে মঙ্গলবার পূর্ব বর্ধমানের ২ বি জাতীয় সড়কের  আউশগ্রামের শিববাটি এলাকায়। পুলিশ জানিয়েছে,ধৃতদের নাম ইব্রাহিম শেখ ও তুফান চৌধুরী। তাদের বাড়ি কাটোয়ার রাজোয়া এলাকায়। মঙ্গলকোটের  রঘুনাথপুরে সুরজ শেখ নামে এক যুবকের লটারির টিকিট বিক্রির দোকান আছে। সেখানে কাজ করেন শাহাজাহান শেখ ওরফে লাল্টু। মঙ্গলবার দুপুরে ব্যবসার টাকা নিয়ে শাহাজাহান বাইকে চেপে একটি ব্যাগে করে নগদ ৫ লক্ষ ১০ হাজার ৪৪০ টাকা এবং ৭ লক্ষ ৮ হাজার ৮০৫ টাকার একটি চেক নিয়ে গুসকরার একটি রাষ্ট্রায়ত্ব ব্যাঙ্কে জমা করতে যাচ্ছিলেন। সে  সময় শিববাটির কাছে শাহাজাহানের চলন্ত বাইকে লাথি মারে দুষ্কৃতীরা। শাহাজাহান মাটিতে উল্টে পড়লে ওই দুই বাইক আরোহী দুষ্কৃতী হেলমেট দিয়ে শাহাজাহানের মাথায় আঘাত করে এবং তাকে আগ্নেয়াস্ত্র দেখিয়ে টাকা ভর্তি ব্যাগটি ছিনিয়ে নিয়ে পালিয়ে যায়। সেসময় ওই রাস্তা দিয়ে বাড়ি ফিরছিলেন আউশগ্রামের উক্তা অঞ্চলের ভিলেজ পুলিশ সুজন পাল। তিনি বিষয়টি বুঝতে পেরেই ছিনতাইকারীদের পিছনে বাইক নিয়ে  ধাওয়া করার পাশাপাশি ফোনে ভেদিয়া অঞ্চলের ভিলেজ পুলিশ জাকির শেখ ও ভেদিয়া ক্যাম্পের পুলিশকে খবর দেয়। ভিলেজ পুলিশ সুজন পাল বাইক নিয়ে দুস্কৃতিদের পিছনে ধাওয়া করায় দুস্কৃতিরা জাতীয় সড়কের বাগবাটি মোড়ে পুলিশী বাধা পেয়ে অন্য রাস্তায় ঢুকতে পারে নি। তারা বাঁচতে  আউশগ্রামের বুধরো গ্রামে ঢুকে পড়ে। পুলিশ দ্রুত সেখানে গিয়ে ছিনতাইকারীদের ধরে ফেলে। উদ্ধার করা হয় খোয়া যাওয়া টাকা ও চেক। পুলিশ জানিয়েছে,দুষ্কৃতীদের ব্যবহৃত বাইক,মোবাইল ফোন এবং হেলমেটটি বাজেয়াপ্ত করা হয়েছে। ভিলেজ পুলিশ সুজন পালের বাড়ি আউশগ্রামের গোবিন্দপুর গ্রামে আর জাকির সেখের বাড়ি ভেদিয়ায়। ধৃত দু’জনকে বুধবার বর্ধমান আদালতে পাঠায় গুসকরা ফাঁড়ির পুলিশ।  ধৃতদেরকে নিজেদের হেফাজতে নিয়ে এই ছিনতাইয়ের ঘটনায় জড়িত বাকিদের খোঁজে সন্ধান চালানোর পাশাপাশি আগ্নেয়াস্ত্রটিকেও উদ্ধার করার চেষ্টা চালাবে পুলিশ। জেলা পুলিশ সুপার  আমন দীপ জানান,দুই ভিলেজ পুলিশ খুব সাহসিকতার পরিচয় দিয়েছেন। তাদের কাজে পুলিশ বিভাগ গর্বিত। দুই ভিলেজ পুলিশ সুজন পাল ও জাকির সেখকে কুর্নিশ জানান পুলিশ সুপার আমন দীপ।

RELATED ARTICLES

LEAVE A REPLY

Please enter your comment!
Please enter your name here

- Advertisment -
Google search engine

Most Popular

Recent Comments